জনপ্রিয়তার শীর্ষে ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী-মাসুদ খাঁন রানা

ad

মো ইমাম হোসেন রিদয়। বাকেরগনজ, বরিশাল (প্রতিনিধি) সময় যতোই বারছে, নির্বাচন ততই কাছে নিয়ে যাচ্ছে, বরিশাল জেলার, বাকেরগন্ঞ্জ উপজেলার, ৫ নং দূর্গাপাশা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন ২০২১ দিন যত যাচ্ছে ততই ঘনিয়ে আসছে ৫ নং দূর্গাপাশা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন।

এবার ৫ নং দূর্গাপাশা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তরুণ ভোটারদের মাঝে আলোচনায় রয়েছেন সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা মাসুদ খাঁন রানা।
বাংলাদেশ আ.লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন নৌকা পেতে দিনরাত নিরলসভাবে জনগণের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

৫ নং দূর্গাপাশা ইউনিয়নের সর্বসাধারণের মুখে আলোচনায় রয়েছে এবারের চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে যোগ্য ও সৎ হিসেবে মাসুদ খাঁন রানা। জনগণ বলছেন, এবারের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নৌকা পেলে বিপুল ভোট পেয়ে বিজয়ী হবেন তিনি। এলাকাজুড়ে তার অবস্থান অন্যসব প্রার্থীদের চেয়ে অনেক ভালো রয়েছে।

মাসুদ খাঁন রানা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সাবেক সহ-সম্পাদক। ছাত্রজীবনে বাংলা কলেজের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পরবর্তীতে সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্বপালন করেছেন। উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী ও তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা মাসুদ খান রানা। আট ভাই-বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট।জানা গেছে, মাসুদ রানার ভাই-বোনের মধ্যে সাবেক ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা জাফর আলী খান, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন খান এবং আওয়ামিলীগ নেতা মোজাম্মেল হোসেন খান দূর্গাপাশা ইউনিয়নে সক্রিয় সাংগঠনিক নেতৃত্বে রয়েছেন।মাসুদ খান রানা বলেন, ১৯৯১ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার মধ্যদিয়ে আমি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। ভাই-ভাবি সহ সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। ভাবি মরিয়ম বেগম বর্তমান ইউনিয়ন পরিষদের ৭/৮/৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত সদস্যা এবং মহিলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি। দীর্ঘ বছর ধরে আমি ও আমার পরিবার আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছি। দলের জন্য আন্দোলন-সংগ্রাম করেছি। দলের প্রয়োজনে সব সময় পাশে থেকেছি। দীর্ঘ রাজনীতির জীবনে সততার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করার চেষ্টা করেছি। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বদিউজ্জামান সোহাগ ও সিদ্দিকী নাজমুল আলমের কমিটিতে সহসম্পাদক ছিলাম।

দূর্গাপাশা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ‘নৌকার মাঝি হতে চান’ জানিয়ে মাসুদ রানা বলেন, চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করতে চাই। দলের ও জনগণের চাহিদা অনুযায়ী আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে চাই। জনগণের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চাই। দেশরত্ন ও তরুণদের আস্থা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে দলীয় মনোনয়ন তথা নৌকা মার্কা দিলে আমি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হব। দূর্গাপাশা ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলব। উন্নয়নই আমার লক্ষ্য, কারণ আমি আওয়ামী লীগ পরিবারের সদস্য। আমি নির্বাচিত হলে অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করবো ইনশাআল্লাহ।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.