অপরাধ ঢাকতে মা ঢাল বানালেন প্রতিবন্ধী ছেলেকে

ad

আবু সায়েম আকন: ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধি। ঝালকাঠির রাজাপুরে নিজেদের অপরাধ ঢাকতে প্রতিবন্ধী ছেলেকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করেছেন হাছিনা বেগম নামে এক মা। সোমবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার দক্ষিন মনোহরপুর গ্রামের মোল্লা বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। হাছিনা বেগম ঐ এলাকার মো. ইউনুস মোল্লার স্ত্রী।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঐ এলাকার হযরত শাহ্ সুফী আইব নুরী চিস্তীয়ার মাজার উন্নয়ন করতে সোমবার রাতে স্থানীয়দের নিয়ে মোল্লাবাড়িতে একটি সভা ডাকে মাজার কর্তৃপক্ষ। ঐ সভার মধ্যে গিয়ে উপস্থিত জনতার সামনে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সুমন নামে একটি ছেলেকে হাসিনা বেগম জুতাপিটা করে। এ সময় মাজারের প্রধান খাদের মো. আনোয়ার মোল্লাসহ মিটিংয়ে উপস্থিত সবাই বাধা দেয়। এ সময় হাছিনা ক্ষিপ্ত হয়ে তার মেয়ে নাসিমা, মেয়ের স্বামী লিটন, পুত্রবধু কেয়া, প্রতিবন্ধী ছেলে সোহেলসহ ১০/১২ জন দাও, লাঠি নিয়ে প্রধান খাদের মো. আনোয়ার মোল্লার ঘরে গিয়ে হামলা চালিয়ে ঘরসহ খাদেমের আসন ভাংচুর করে।

এ সময় খাদেমের ৭ম শ্রেনী পড়ুয়া মেয়ে পূর্ণিমা বাধা দিতে চাইলে তাকেও এলোপ্যাথারি পিটিয়ে আহত করে। ঘটনা স্থল থেকে আনোয়ার ভয়ে পালিয়ে গেলে তারা আনোয়ার মোল্লার ঘর থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে নেয়। পরে স্থানীয়রা পুর্ণিমাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। হাছিনার পরিবার তাদের অপরাধ ডাকতে নিজের প্রতিবন্ধী ছেলে সোহেলকে আহত সাজানোর চেষ্টা করছে।

অভিযুক্ত সোহেল জানায়, আমার বউকে ইভটিজিং করায় আমার মা সভার মধ্যে গিয়ে সুমনকে জুতার ভাড়ি দিছে।

একই বাড়ির বাসিন্দা মো. ওমর মোল্লা জানায়, সোহেল হাটার সময় তার পায়ে একটু সমস্য অনুভব হয়। তবে সে সুস্থ মানুষের চেয়েও বেশি শক্তিশালী। তাছাড়া বাড়ির মধ্যে ৫টি পরিবার থাকলেও হাছিনার পরিবারের সাথে কারো সম্পর্ক নেই।

রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, উভয় পক্ষের কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.